বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ১০ জলপ্রপাত


মানুষ  হলো ভ্রমণ পিয়াসী। মানুষ সাধারণত  ভ্রমণ করতে পছন্দ করে থাকে বেশি। মানুষ  ভ্রমণের জন্য সুদূর পথ পাড়ি দিতেও দ্বিধাবোধ করে না। মানুষ সময় পেলেই বেরিয়ে পড়ে ভ্রমণ করতে। আর ভ্রমণের ফলে মানুষ তার মনের প্রশান্তি লাভ বাড়িয়ে  থাকে অনেক গুন।  তাই মানুষের ভ্রমণ করা উচিত যা মন ও স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ভালো। 

ভ্রমণের জন্য মানুষ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে থাকে। তার মধ্যে পর্যটকদের কাছে একটা আকর্ষনীয় স্থান হল জলপ্রপাত গুলোতে  ভ্রমণ। জলপ্রপাতের সৌন্দর্য পর্যটকদের ভীষণভাবে টানে। তাই তো বারবার ছুটে যায় জলপ্রপাতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে।

শুভ্র জলধারার জলপ্রপাতের দৃশ্য দেখে অনেক পর্যটকই মুগ্ধ হয়ে থাকে। অনেকের কাছে এই জলপ্রপাত ভ্রমণ একটা রোমাঞ্চকর ব্যাপার থেকে কম না। তাইতো এসব স্থান গুলো অনেক পর্যটকদের বিস্ময়ের কারণ হয়ে থাকে। 

বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ১০ জলপ্রপাত 

একটি নির্দিষ্ট উচ্চতা থেকে প্রাকৃতিক ভাবে বহমান জলের প্রবল বেগে পতন হওয়ার নাম হল জলপ্রপাত। জলপ্রপাত বিভিন্ন প্রকারের হয়ে থাকে। যেকোনো জলপ্রপাতের পানির উৎস হচ্ছে নদী, হ্রদ, বরফ গলা পানির স্রোত  অথবা মাটির নিচ থেকে উঠে আসা পানি। 

আজ এমনি বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ১০ জলপ্রপাতের কথা আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। চলুন জেনে নেয়া যাক এই জলপ্রপাত গুলি সম্পর্কে- 

১. এঞ্জেল জলপ্রপাত 

বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু জলপ্রপাতটি হল এঞ্জেল ফলস জলপ্রপাত। এর আকর্ষণীয় সৌন্দর্য মানুষকে তার কাছে টেনে নেয়। এটি ভেনেজুয়েলায় অবস্থিত। এটি বিশ্বের সর্বোচ্চ নিরবচ্ছিন্ন জলপ্রপাত।

 এর উচ্চতা হলো ৯৭৯ মিটার বা ৩২১২ ফুট। এর গভীরতা হলো ৮০৭ মিটার বা ২৬৪৮ ফুট। এই জলপ্রপাতের উচ্চতা একটি ৩২১ তলা বিল্ডিং এর সমান। এটি হলো ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটি অংশ।

যদিও যেকোনো জলপ্রপাতের পানির উৎস হয়ে থাকে নদীর পানি, হ্রদ, বরফগলা পানি অথবা মাটির নিচ থেকে উঠে আসা পানি।  কিন্তু এই জলপ্রপাতের সেই রকম কোন উৎস নেই। আসলে রেইনফরেস্ট হওয়ায় এই অঞ্চলে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয় আর এই বৃষ্টিপাতের পানি পাহাড় থেকে অবিরাম ধারাই পরে তৈরি করেছে এই জলপ্রপাতটি।

এঞ্জেল জলপ্রপাত
এঞ্জেল জলপ্রপাত

এই জলপ্রপাতের একটা অবাক করার ব্যাপার হল এই জলপ্রপাত থেকে পানি নিচে পড়ার আগেই বাষ্প হয়ে যায় যা এর চারপাশে কুয়াশার আস্তরণ তৈরি করে এই জলপ্রপাতটির সৌন্দর্য আরো বহুগুণ  বাড়িয়ে দিয়েছে।

এই জলপ্রপাতটি মার্কিন বিমান চালক জিমি এঞ্জেল প্রথমে আবিষ্কার করেন। তাই এরপর থেকে এটি তার নামেই পরিচিত লাভ করে। স্থানীয় অধিবাসীরা ‘পেমন’ ভাষায় এই জলপ্রপাতটির নাম করেন ‘কেরেপাকুপাই ভেনা’ নামে। যার অর্থ হলো ‘গভীরতম স্থানের জলপ্রপাত’। আবার এই ‘পেমন’ ভাষায় এই জলপ্রপাতকে ডাকা হয় ‘পারাকুপা ভেনা’ নামে। যার অর্থ হলো ‘সবচেয়ে উঁচু জলপ্রপাত’। 

এই জলপ্রপাতের সৌন্দর্য দেখে মনে হয় এ যেন স্বর্গের সৌন্দর্যকে পৃথিবীর বুকে নামিয়ে এনেছে। তাই প্রতিবছর প্রচুর ভিড় জমে এই জলপ্রপাতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে।

২.তুগেলা জলপ্রপাত

এই জলপ্রপাতটি দক্ষিণ আফ্রিকার  রাজকীয় নাটাল ন্যাশনাল পার্ক, কাওয়াজুলু নাটালে অবস্থিত। তুগেলা জলপ্রপাতটি তুগেলা নদীর উৎস। এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বিশ্বের জলপ্রপাত। এর উচ্চতা ৩১১০ ফুট বা ৯৪৮ মিটার।

তুগেলা জলপ্রপাত
তুগেলা জলপ্রপাত

আর পানি পতিত হওয়া উচ্চতা ১৩৫০ ফুট। প্রতি সেকেন্ডে  গড় পানি পতিত হওয়ার পরিমাণ ৫০ ঘনফুট। তিউগেলা জলপ্রপাতগুলিতে সহজেই যাওয়া  যায়। এখানে একটি সুপরিচিত পর্যটন স্টপ রয়েছে।

৩.ট্রিস হারমানাস জলপ্রপাত 

ট্রিস হারমানাস জলপ্রপাতটি  পেরুতে  অবস্থিত। পেরু হলো দক্ষিণ আমেরিকার পশ্চিম-মধ্য অঞ্চলে এবং প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূলে অবস্থিত একটি রাষ্ট্র। এটি বিশ্বের তৃতীয় জলপ্রপাত। এই জলপ্রপাতের  আক্ষরিক  নাম হল থ্রি সিস্টার্স জলপ্রপাত বা তিন বোনের জলপ্রপাত। 

এর তিনটি স্বতন্ত্র স্তর বা পদক্ষেপের জন্য এর নামকরণ করা হয় থ্রি সিস্টার্স জলপ্রপাত। এই জলপ্রপাতের শীর্ষ দুটি স্তর হলো জলের। যার একটি বৃহৎ যা প্রাকৃতিক ক্যাচ বেসিনে পড়ে। তৃতীয় স্তরটি যা নীচে কুটিভিরেনি নদীতে পড়ে।

ট্রিস হারমানাস জলপ্রপাত
ট্রিস হারমানাস জলপ্রপাত

এই জলপ্রপাতগুলির চারপাশে ঘনভূমি ও গ্রীষ্মমণ্ডলীয় রেইন ফরেস্ট দ্বারা বেষ্টিত রয়েছে।  এখানে গাছগুলি সাধারণত ১০০ ফুট লম্বা হয়ে থাকে। এই জলপ্রপাতটি কেবল বাতাস থেকে দৃশ্যমান। কারণ এই অঞ্চলের ঘন গাছপালা ভূগর্ভস্থ স্তর থেকে এর পুরো দৈর্ঘ্যটি দেখা অসম্ভব করে তোলে। 

এই জলপ্রপাতের উচ্চতা ৩ হাজার ফুট অর্থাৎ ৯১৪ মিটার। এই জলপ্রপাতটির গড় প্রস্থ  ৪০ ফুট ও গড়ে প্রতি সেকেন্ডে পানি পতিত হয় ৫০ ঘনফুট। এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতি বছর হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ মানুষ জলপ্রপাতটি ভ্রমণ করতে গিয়ে থাকেন। 

৪.ওলো’উপেনা জলপ্রপাত

ওলো’উপেনা জলপ্রপাতটি যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপে অবস্থিত। এটি বিশ্বের চতুর্থ জলপ্রপাত। এটি টায়ারড প্রকারের জলপ্রপাত। এর দু’পাশ বিশাল পাহাড়ে  বেষ্টিত। এই দুর্দান্ত জলপ্রপাতটি এত দূরে অবস্থিত  যে এটিতে পৌঁছানোর কোনও প্রবেশপথ নেই।

ওলো’উপেনা জলপ্রপাত
ওলো’উপেনা জলপ্রপাত

এটিও পু’উকা’কু জলপ্রপাতের মতো কেবল বাতাস বা সমুদ্রের মাধ্যমে যাওয়া যায়। ওলুউপেনা জলপ্রপাতটি দেখার সবচেয়ে ভাল সময় হলো বর্ষাকাল (মার্চ-নভেম্বর) পর্যন্ত। অসংখ্য গাইডেড নৌকা এবং বিমান এই জলপ্রপাত ঘুরে আনতে সাহায্য করে।

এর উচ্চতা ২৯৫৩ ফুট  অর্থাৎ ৯০০ মিটার। প্রতি বছর লাখ লাখ ভ্রমণপিয়াসু মানুষ এই জলপ্রপাতটির সৌন্দর্য উপভোগ করতে  গিয়ে থাকেন। 

৫.ক্যাটারাটা ইয়ুমবিলা জলপ্রপাত

এই জলপ্রপাতের অবস্থান পেরুতে। এটি পেরুর অ্যামাজনাস রাজ্যের কুইপেজ জেলায় অবস্থিত। এটি চারটি বড় ফোঁটাযুক্ত একটি টায়ারড প্রকারের জলপ্রপাত। এর প্রস্থ বর্ষাকালে বৃদ্ধি পায় ও শুকনো মৌসুমে সঙ্কুচিত হয়।

ক্যাটারাটা ইয়ুমবিলা জলপ্রপাত
ক্যাটারাটা ইয়ূমবিলা জলপ্রপাত

এর উচ্চতা ২৯৩৮ ফুট বা ৮৯৬ মিটার। এটি বিশ্বের ৫ম তম বৃহত্তম জলপ্রপাত হিসাবে বিবেচিত হয়ে থাকে। 

৬.ভিন্নুফালেট জলপ্রপাত

ভিন্নুফালেট জলপ্রপাতটি নরওয়েতে অবস্থিত। এটি নরওয়ের মোগ অগ রোমসডাল জেলার স্যান্ডেলে অবস্থান করছে। এই জলপ্রপাতটি স্থানীয়ভাবে ভিন্নুফোসেন হিসেবে পরিচিত লাভ করে থাকে। এই জলপ্রপাতগুলি বিনু নদীর অংশ যা ভিনুফজেললেট পর্বত থেকে প্রবাহিত হয়ে থাকে। এটি বিশ্বের ষষ্ঠ তম লম্বা জলপ্রপাত।

ভিন্নুফালেট জলপ্রপাত
ভিন্নুফালেট জলপ্রপাত

এটি টায়ার্ড হর্সটেলস প্রকারের জলপ্রপাত। এর গড় প্রস্থ ১২৫ ফুট। এর উচ্চতা ২৮৩৮ ফুট বা ৮৬৫ মিটার। এই জলপ্রপাত থেকে পানি পতিত হওয়ার উচ্চতা প্রায় ১৩৭৮ ফুট। প্রতি সেকেন্ডে পানি পতিত হওয়ার হার হল ১৩২০ ঘনফুট। 

৭.স্কর্গা জলপ্রপাত

স্কর্গা জলপ্রপাতটি হলো নরওয়ের আরো একটি বিশেষ আকর্ষণীয় জলপ্রপাত। এর উচ্চতা হল ২৮৩৫ ফুট বা ৮৬৫ মিটার। এই জলপ্রপাত থেকে পানি পতিত হওয়ার উচ্চতা হল প্রায় ১৪০০ ফুট।

স্কর্গা জলপ্রপাত
স্কর্গা জলপ্রপাত

৮.পুকাওকু জলপ্রপাত 

পুকাওকু জলপ্রপাতটি যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম একটি বড় জলপ্রপাত। এটি হাওয়াই এর মলোকাইতে অবস্থিত। এই জলপ্রপাতের উচ্চতা ২৭৫৬ ফুট বা ৮৪০ মিটার। 

পর্যটকরা অভিজ্ঞ গাইডদের নিয়ে নৌকা বা হেলিকপ্টার থেকে ঝর্ণা দেখতে সক্ষম হন। যারা সঠিক জানেন কোথায় দেখতে হবে। অবশ্য মোলোকা উপকূল একটি ভয়ঙ্কর পরিবেশ যা মাঝে মাঝে একটি অদ্ভুত দৃশ্য তৈরি করে থাকে।

পুকাওকু জলপ্রপাত
পুকাওকু জলপ্রপাত

৯.জেমস ব্রুস জলপ্রপাত

জেমস ব্রুস জলপ্রপাতটি কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশের প্রিন্সেস লুইসা প্রভিন্সিয়াল মেরিন পার্কে অবস্থিত। এটি প্রকারের দিক থেকে টায়ার্ড হর্সটাইল প্রকৃতির।

জেমস ব্রুস জলপ্রপাত
জেমস ব্রুস জলপ্রপাত

এর উচ্চতা ২৭৬০ ফুট ৮৪০ মিটার ও প্রস্থ হল ১৫ ফুট। এটি উচ্চতার দিক দিয়ে বিশ্বের ৯ম তম জলপ্রপাত। 

এটি একটি ছোট স্নোফিল্ড এবং ক্যাসকেডগুলি 840 মিটার থেকে নীচে প্রিন্সেস লুইসা ইনলেট পর্যন্ত রয়েছে । দুটি সমান্তরাল স্রোতের কারণে এই ঝরনার নামকরণ করা হয়েছে।

১০.ব্রাউন জলপ্রপাত 

ব্রাউন জলপ্রপাতটি নিউজিল্যান্ডের সাউথ আইল্যান্ড প্রদেশের ফিওর্ডল্যান্ড ন্যাশনাল পার্ক-এ অবস্থিত। এই জলপ্রপাতটি ক্যাসকেড প্রকারের।

ব্রাউন জলপ্রপাত
ব্রাউন জলপ্রপাত

এই জলপ্রপাতের উচ্চতা ২৭৪৪ ফুট। এর গড় প্রস্থ ৪০ ফুট ও ৮০০ ফুট উচ্চতা হতে এর পানি পতিত হয়। এটি বিশ্ব উচ্চতার র‌্যাঙ্কিং-এ ১০ তম।

এই জলপ্রপাতটির নামকরণ করা হয় বিমান  ফটোগ্রাফার ভিক্টর কার্লাইল ব্রাউনের নামে। যিনি ১৯৪০-এর দশকে ফায়ারল্যান্ডের উপর দিয়ে তাঁর একটি ফ্লাইটে লেক ব্রাউন জলপ্রপাতটি আবিষ্কার করেছিলেন।

শেষ কথা 

আমাদের পৃথিবী সুন্দর আর এই সুন্দর পৃথিবীতে অনেক রকম সুন্দর বিষয়বস্তু আছে। আর এই অপরুপ সুন্দর পৃথিবীর একটি  সৌন্দর্যের অংশ হল জলপ্রপাত। জলপ্রপাতের সৌন্দর্য প্রতিটা মানুষকে তার কাছে নিতে বাধ্য করে। তার সৌন্দর্য্যে মুগ্ধ হয়ে মানুষ বার বার ছুটে যায়। প্রতি বছর লাখ লাখ পর্যটক জলপ্রপাতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে অনেক দেশ ঘুরে থাকেন।

 
বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ১০ জলপ্রপাতের বর্ণনা এখানে তুলে ধরা হল। আশা করি আপনারা এর ফলে নতুন কিছু জানতে পেরেছেন। আরো নতুন কিছু সম্পর্কে যদি আপনাদের জানার আগ্রহ থাকে তাহলে আমাদের অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

Explore more

আপনার স্বাস্থ্য রক্ষায় ১০ টি উপাদান যুক্ত খাদ্য তালিকার নাম

বিশ্বের সেরা ১০ ফুটবল খেলোয়ার

Recent Posts