২০২১ সালের বিশ্বের সেরা ১০টি স্মার্টফোন গেইমস, যা আপনার বিনোদন কে করবে আরও চমকপ্রদ


গেইম খেলতে কেনা ভালোবাসে। প্রযুক্তির কল‍্যাণে আজকাল ছেলে থেকে বুড়ো সবার হাতে হাতে আছে স্মার্টফোন। আর অবসরে বিনোদনের আরেক নামই হচ্ছে স্মার্টফোন গেইমস। শুধু কি তাই, করোনা পরিস্থিতির জন‍্যে ঘরের বাইরে যাওয়া যখন একেবারেই অসম্ভব তখন এ‍্যানিমেশন টাইপ গেইম ই এখন আমাদের নিত‍্যদিনের সঙ্গী। 

আজকাল হরহামেশা নতুন নতুন গেইমের আপডেট ভার্সন ও প্রচলিত রয়েছে। আবার কোন কোন গেমসের মাধ‍্যমে অনেকে রাতারাতি লাখপতিও হয়ে যাচ্ছেন। 

আজকের লেখায় তাই ২০২১ সালের বিশ্বের সেরা দশটি স্মার্টফোন গেমস নিয়ে আলোচনা করব যা আপনার বিনোদন জগতকে করে দিবে আরও বেশি চমকপ্রদ। প্রযুক্তির সাধুবাদে এখন জীবন্ত গেমসও খেলা সম্ভব হয়েছে যার জন‍্যে এখন আপনি সরাসরি গেমের ভেতরে ঢুকে খেলছেন এমন এক অনুভূতি আস্বাদ করতে পারবেন। 

কে করেছিল স্মার্টফোন গেমসের উদ্ভব? 

১৯৯২ সালের গোড়া’র দিকে সর্বপ্রথম আইবিএম কোম্পানি স্মার্টফোন আবিষ্কার করেন। তবে তখনও স্মার্টফোন কে বাজার-জাত না করেই সাইমন পার্সোনাল কমিউনিকেশন এর জন‍্যে ব‍্যবহার করতেন। পরবর্তী তে ১৯৯৫ সাল থেকে তাকে স্মার্টফোন বলে অভিহিত করা হয় যা ১৫ বছর আগেই আইবিএম স্মার্টফোন আবিষ্কার করেন।

 প্রথমদিকে স্মার্টফোন এর লক্ষ‍্য ছিল এন্টারপ্রাইজ মার্কেট, যেগুলো পার্সোনাল ডিজিটাল এ‍্যাসিস্ট‍্যান্টের সুবিধা সমূহ ভুঠোফোনে আনতে চেয়েছিল। পরবর্তী তে ২০০০ এ ব্ল‍্যাকবেরি, নকিয়ার সিম্বিয়ান প্ল‍্যাটফর্ম, উইন্ডোজ ফোন এর জনপ্রিয় তা বাড়তে শুরু করে। 

২০০৭ সালে আইফোন মুক্তির পর স্মার্টফোন গুলো তে পরিবর্তন আসতে থাকে যার মধ‍্যে আছে টাচ সেনসিটিভ স্ক্রিন, মাল্টিটাচ জেসচার, মোবাইল অ‍্যাপ্লিকেশন ডাউনলোডার সহ আরও নানা ধরণের উদ্ভাবনীয় সামগ্রী। যার মধ‍্যে মোবাইল গেমস ও যুক্ত হয়।

২০১৩ সালের দিকে মানুষের হাতে হাতে স্মার্টফোন এর পরিমাণ যেমন বাড়তে থাকে তেমনি গেইমসের অ‍্যাপ ও সচরাচর বাড়তে থাকে। ফলে ধীরে ধীরে মানুষের বিনোদন জগতে স্মার্টফোন গেমস জায়গা করে নিতে থাকে। 

এক নজরে বিদায়ী বছরের সেরা গেমসগুলো নিচে দেয়া হলো যা কিনা ২০২১ সালেও রয়েছে জনপ্রিয়তা-র শীর্ষে। 

১) পোকেমন গো 

২) পাবজি মোবাইল 

৩) মাইনক্র‍্যাফট 

৪) ফোর্টনাইট

৫) ক্রাশল‍্যান্ড

৬) ইভোল‍্যান্ড

৭) হোলডাউন 

৮) অ‍্যাল্টোস অ‍্যাডভ‍্যাঞ্চার 

৯) হেলিক্স জাম্প 

১০) ব‍্যাডল‍্যান্ড ব্রাউল 

১) পোকেমন-গো গেইমস (Pokemon-Go Games) 

পোকেমন মূলত এক ধরণের ভার্চুয়াল প্রাণী। জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্র থেকে এর উদ্ভব। এ ধরণের গেইমে বাচ্চাদের রয়েছে বিশেষ ধরণের আর্কষণ। গেইমটি খেলার নিয়ম অন‍্যান‍্য গেইম থেকে কিছুটা আলাদা। 

গেইমটিতে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে হেঁটে হেঁটে পোকেমন কে খুঁজে বের করতে হয় গেইমারকে। এটিকে প্রশিক্ষণ দিয়ে অন‍্যান‍্য পোকেমন ধরার কাজে কিংবা অন‍্যান‍্য কাজে ব‍্যবহারকারি’কে পোকেমনের সঙ্গে যুদ্ধ করে এতে অংশগ্রহণ করে আদায় করে নিতে হয়।

২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া ১৩ ঘন্টার জনপ্রিয় হওয়া গেমসটি এখনো গেইমসের জগতে সর্বোচ্চ স্থান দখল করে রেখেছে। 

২) পাবজি মোবাইল গেইমস ( PUBG Mobile Games) 

আজকাল ভাইরাল হওয়া সব থেকে জনপ্রিয় একটি শব্দ হচ্ছে পাবজি। যা একটি মোবাইল বা স্মার্টফোন ভাইরাল গেইমস। স্মার্টফোন এর জগতে পাবজি হচ্ছে প্লেয়ার আননোওন ব‍্যাটল গ্রাউন্ড। এটি আসলে পাবজির জগতে বিনামূল্যে টিকে থাকার শ‍্যুটিং গেইম। 

ধরুণ, আপনি সহ আরও ৯৯ জনকে বেঁচে থাকার জন‍্যে কোন ধরণের সরঞ্জামাদি ছাড়াই ছেড়ে দেওয়া হলো। এখন আপনাকে বেঁচে থাকার জন‍্যে যা যা করার দরকার তাই করতে হবে। 

আপনাকে প্রয়োজনে শত্রুর মোকাবেলা করতে হতে পারে কিংবা যুদ্ধে অংশগ্রহণও করতে হতে পারে। এমন কাহিনীভিত্তিক এই গেইমসটি সারা দুনিয়ার ছোট থেকে বড় সবার পছন্দের। প্রথম দিকে এটি শুধুমাত্র পিসিতেই খেলা যেতো। কিন্তু এখন পিসির মতো মোবাইলে ও এটি সমানভাবে সমাদৃত। 

পাবজি গেমের কনসেপ্ট মূলত ২০০০ সালে প্রকাশিত কিমজি ফুকাসাকু পরিচালিত “ব‍্যাটেল রয়‍্যাল” নামক জনপ্রিয় মুভি থেকে। মুভির প্রধান থিম ছিল কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রীদের একটি অজানা দ্বীপে নিয়ে কিছু খাবার, পানি, এবং অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। আর তাদের গলায় বেঁধে দেওয়া হয় একটি ব‍্যান্ড। পালাবার চেষ্টা করলেই সেই বেন্ড ফেটে মারা পরতে হবে। আর এই থিমকে কেন্দ্র করেই এটি পরিচালিত হলে ও গেমটির স্রষ্টা সম্পর্কে এখনো বিশদ কিছু জানা যায়নি। 

পাবজি সর্বপ্রথম ২০১৭ সালের ২৩ শে মার্চ উইন্ডোজের বেটা ভার্সন পরবর্তী-তে ২০ শে মার্চ ফুল ভার্সন বিশ্বব‍্যাপী মুক্তি পায়। এর রেশ ধরেই ২০১৮ সালের ৯ ই ফেব্রুয়ারি  পাবজির প্রারম্ভিক অ‍্যাক্সেস এবং ওই সালের ১৯ শে মার্চ পুরোপুরি রিলিজ হয়। 

৩) মাইনক্রাফট গেমস (MINECRAFT Games)

মাইনক্রাফট গেইমসটি গেলো বছর সবার শীর্ষে ছিল যা এখনো সবার শীর্ষেই রয়েছে। এই খেলার মধ‍্যে ঢুকলে আপনি পাবেন বিশাল বড় একটি খনি। সেখানে আপনাকে আরও নতুন অনেক কিছু বানাতে হবে অথবা নতুন কিছু সংযোগ করতে হবে। শত্রুপক্ষকে ঘায়েল করতে হবে।

 সবচেয়ে চমকপ্রদ বিষয় হচ্ছে এখানে আপনি যা খুশি তাই করতে পারবেন। এখানে রয়েছে বেঁচে থাকার জন‍্যে সারভাইভাল মোড। এখানে আপনার সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে গোপনীয় জিনিসপত্র, খাবার ও অন‍্যান‍্য আনুষঙ্গিক সম্পদ লুকিয়ে রাখতে হবে। এই গেমসের বিশেষত্ব হচ্ছে যে এতে করে আপনার সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পাবে। 

যদি এই গেমসটি এখনো না খেলে থাকেন তাহলে আজই একবার চেষ্টা করে দেখুন। 

৪) ফোর্টনাইট গেমস (Fortnite Battle Royal Games)

ফোর্টনাইট গেমসটি দলবদ্ধভাবে খেলার জন‍্যে উপযোগী। সেভাবে যদি খেলেন তবে দলগতভাবে শেষ পর্যন্ত আপনাকে টিকে থাকার লড়াইয়ে জিততে হবে। এই ধরণের গেইমের মজাটাই এখানে। ফোর্টনাইট গেলো বছরের বহুল আলোচিত একটি গেমস যা ২০২১ এ-ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। এই গেমের লোবিতে গেম শুরুর আগে সবাইকে একটি দ্বীপে রাখা হয়। 

এরপর পর্যায়ক্রমে একটি উড়ন্ত বাসে করে ফোর্টনাইটের দ্বীপে নিয়ে যাওয়া হয় সবাইকে। এরপর শুরু হয় একে অপরকে দমনের পালা। ফোর্টনাইট দ্বীপের রক্ষিত বাড়িঘর ও অপরিচিত জায়গা থেকে বিভিন্ন অস্ত্র খুঁজে নিতে হবে খেলোয়ারদের। এভাবেই চলবে ম‍্যাচ এবং আস্তে আস্তে কমবে প্রতিদ্বন্দ্বী বোঝাই যাচ্ছে গেমসটা আসলেই অনেক মজার ও উত্তেজনা পূর্ণ। 

৫) ক্রাশল‍্যান্ড গেইমস ( Crashland Games)

ক্রাশল‍্যান্ড মুক্তি পায় ২০১৬ সালের দিকে। সেই প্রথম থেকেই এটি জনপ্রিয় এন্ড্রোয়েড গেইমসগুলোর মধ‍্যে একটি। এতে পরস্পর বিশিষ্ট ট্র‍্যাকার রয়েছে। 

এই ট্র্র‍্যাকারটি এলিয়েনদের বাসগৃহে বিচ্ছিন্নভাবে ক্রাশ করে। জনপ্রিয়তার তালিকায় এটি রয়েছে পঞ্চম স্থানে। তবে গেমটি খেলার বিশেষত্ব হচ্ছে একজন গেমার হিসেবে গেমটির ভেতরে কি ঘটছে তা খুঁজে বের করা। 

এছাড়াও সেখানে আপনাকে নিজের ভিত্তি, বিভিন্ন আইটেম বা নমুনা ও খুঁজে বের করতে হয়। আবার দুর্বৃত্তের চক্রান্ত থেকে রক্ষা করতে হয় পৃথিবীকে। 

৬) ইভোল‍্যান্ড -১,২ সিরিজ গেইমস ( Evoland -1,2 Series Games)

ইভোল‍্যান্ড গেমসটি এই সিরিজের ১ ও ২ মোট দুটি সিরিজে বিভক্ত। গেইম দুটি বিশ্বজুড়ে অত‍্যধিক জনপ্রিয়। জনপ্রিয়তার দিক থেকে এটি ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে।

 এটি একটি ভিন্ন ধারার গেইমস। এতে আপনি পাবেন বিভিন্ন পাজল বা ধাঁধা, টপ ডাউন শুটার, ক্ল‍্যাসিক যোদ্ধা, ট্রেডিং কার্ড, আর প্ল‍্যাটফরমার মেকানিক্স।

 এই গেইমসের মেকানিক্সের প্রতিটি সুইচ খেলার অংশকে আরও ভালোভাবে সাজানো যায়। আর যদি চান তো এর গ্রাফিক্সেও আপনি মনের মতো পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। 

৭) হোলডাউন গেইমস ( Hole Down Games) 

হোলডাউন গেইমস আমাদের শীর্ষ স্থানের তালিকায় রয়েছে সপ্তম অবস্থানে। গ্রহ-নক্ষত্র নিয়ে আমাদের কম-বেশি সকলেরই আগ্রহের শেষ নেই। কিন্তু আমরা চাইলে তো আর সেখানে চলে যেতে পারিনা। 

কিন্তু অন‍্যভাবে যেতে চাইলে আপনি এই হোলডাউন গেইমসের মাধ‍্যমে। এতে রয়েছে শ‍্যুটিং বল ও ভাঙ্গা ব্লক। এগুলো দিয়ে ভূ-গর্ভস্থে খনন ও গ্রহ থেকে গ্রহে ঘুরেফিরে বেড়ানো সম্ভব। 

এই গেমের প্রতিটি রাউন্ডই সীমিত। এখানে আপনি কিছু ব্লক ও পাবেন যেগুলো শক্তপোক্তভাবে প্রাচীরের সাথে যুক্ত। 

এই গেমসে আপনাকে অনেক কৌশল খাটিয়ে সামনের দিকে যেতে হবে। পর্যাপ্ত স্ফটিক সংগ্রহ করে পৃষ্ঠের নিচের গভীরতা কমাতে হবে একজন গেমারকে। 

৮) আল্টোস অ‍্যাডভেঞ্চার গেইমস( ALTO’s ADVENTURE Games)

এই গেইমসের মাধ‍্যমে আপনি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ‍্যে ঘুরে আসতে পারবেন। এজন‍্যেই এটি সেরা দশমের তালিকায় নিজের স্থান করে নিতে পেরেছে। অপরুপ সুন্দর পাহাড়ের দৃশ‍্য, চোখের সামনে দিন থেকে রাত নেমে আসা।

 এর মধ‍্যেই আবার অপূর্ব সুরে স্নোবোর্ডিং করতে পারবেন। হাতের মুঠোর মোবাইলে যে আপনি এতোগুলো কাজ করতে পারছেন ব‍্যাপারটাই তো মজার ও আর্কষণীয়। 

৯) হেলিক্স জাম্প গেইমস ( HELIX JUMP Games) 

হেলিক্স জাম্প গেইমসের নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে এতে যথেষ্ট খাঁটাখাঁটনি, দৌড়ঝাপ ও লাফালাফি করতে হবে আপনাকে। এটি একটি মজার আর্কেড গেইমস। এটি খেলার জন‍্যে আপনাকে হেলিক্স মেজের নিচের দিকে নেমে যেতে হবে। 

আর এটি করার জন‍্যে আপনাকে একটি পতনশীল বলকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে লক্ষ‍্যের দিকে নিয়ে যেতে হবে। আপনার মূল কাজটিই হচ্ছে হেলিক্স মেজের ঘুর্ণন নিয়ন্ত্রণ করা। এজন‍্যে আপনার বলটার ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণও করতে হবে আপনাকে।

১০) ব‍্যাডল‍্যান্ড ব্রাউল ( BADLAND BROWL Games) 

এই ব‍্যাডল‍্যান্ড ব্রাউল গেইমসের অন‍্য গেইমসগুলোর তুলনায় কিছুটা ভিন্ন গেইম। এই গেইমের মধ‍্যে পুরোপুরি ভিন্ন অভিজ্ঞতা পাবেন আপনি। এতে রয়েছে ক্লাস রোয়েল, জনপ্রিয় ক্লাশ অফ ক্ল‍্যান্সের মতো ট্রেডিং মেকানিক্স ও প্লাটফর্ম ম‍েকানিক্স ব‍্যবহার করা হয়ে থাকে। ক্লাশ অফ ক্ল‍্যান্সের ভিন্নধর্মী দারুণ আউটল‍্যাট ও আউটওয়ার্কটি ব‍্যাডল‍্যান্ড বাউল গেইমসটির মধ‍্যেও রাখার চেষ্টা করা হয়েছে। আপনার গেইমের মধ‍্যে থাকা ক্লোন ও বিভিন্ন অক্ষরগুলোকে অন‍্যরকম রঙ্গিন অবয়বে বদলে দিতে হবে। 

ফ্রগম‍্যান্ট কর্তৃপক্ষের এই গেইমসটি একবার খেললে বারবার খেলতে ইচ্ছে হবে। গেইমসটি আপনি গুগল প্লে-স্টোর থেকে সহজেই নামিয়ে নিতে পারবেন। 

  • আরও কয়েকটি জনপ্রিয় গেইমস 

জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা এই দশটি গেইমের পাশাপাশি আরও কয়েকটি গেইমস রয়েছে যা এখনো অনেকর কাছেই সর্বজনীন। এগুলোর মধ‍্যে আছে ফ্রি-ফায়ার, ক্ল‍্যাশ অফ ক্লান্স, সাবওয়ে সার্ফারস, কালার বাম্প থ্রিডি, ইত‍্যাদি গেইমসসমূহ। 

  • ফ্রি-ফায়ার – 

গেইমের জগতে আরও একটি শীর্ষস্থানীয় গেম হচ্ছে ফ্রি-ফায়ার গেমস। এটি একটি রয়াল ব‍্যাটেল গেইম। ২০১৯ এর  নভেম্বর মাস পযর্ন্ত এই গেইমসটি প্রায় এক বিলিয়ন ডলারেরও বেশি আয় করেছে। দশ মিনিটের এই গেইমটি প্রায়ই ৫০ জন প্লেয়ার একসঙ্গে খেলতে পারেন। 

  • সাবওয়ে সার্ফারস – 

মোবাইল গেইমের মধ‍্যে এটি সর্বাধিক জনপ্রিয়। ২০১২ সালের দিকে গেইমটি বাজারে উন্মুক্ত করা হয়। এই গেইমটি এখনো পর্যন্ত একশো সত্তরবারের ও বেশি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা হয়েছে। এই গেইমটি অ‍্যান্ড্রোয়েড, আইওএস, কিন্ডল এবং উইন্ডোজ প্ল‍্যাটফর্মে পেয়ে যাবেন। 

  • কালার বাম্প থ্রিডি –

কালার বাম্প থ্রিডি গেইমসটিও উপরের অন‍্য সব গেইমসের মতোই মোবাইল ফ্রেন্ডলি গেইমস। এটি একটি দক্ষতা ভিক্তিক গেইম। এই দুর্দান্ত গেইমটি বেশিরভাগ ব্রাউজারে চালানোর জন‍্যে ওয়েবজিএল ব‍্যবহার করে। 

  • শেষ কথা 

বিশ্বের সেরা দশটি স্মার্টফোন গেইমসের মধ‍্যে আপনার পছন্দসই একটি বেছে নিন। আর হারিয়ে যান ভার্চুয়াল বিনোদনের দুনিয়ায়। তবে অবশ‍্যই গেইম খেলতে গিয়ে বাস্তবজীবনকেও গেইম বানিয়ে ফেলবেন না যেনো।

 এরকম ঘটনা আমাদের চারপাশে হরহামেশাই ঘটছে যে পাবজি খেলতে গিয়ে রাস্তায় হোচট খেয়ে পরেছেন কিংবা খেলার দুনিয়ায় এতটাই মগ্ন হয়ে গিয়েছে যে বাস্তবজীবনের কথা ভুলেই গিয়েছেন অনেকে। 

প্রযুক্তি আমাদের জীবনযাত্রাকে যতটা না সহজ করেছে তেমনি আমাদের কে ভার্চুয়াল জগতের দাসে ও পরিণত করে ফেলেছে। আর তাই আমাদের উচিত সবকিছুই পরিমিতভাবে ব‍্যবহার করা।

 এক গবেষণায় দেখা যায় যে একটি নির্দিষ্ট সময়ে যদি একজন মানুষ গেইম খেলে তবে তার মধ‍্যে বুদ্ধিমত্তা ও সৃজনশীলতা দুটোই বৃদ্ধি পায়। 

সুতরাং আমাদের ও উচিৎ স্মার্টফোন কে মাত্রাতিরিক্ত ব‍্যবহার না করে একটি নির্দিষ্ট মাত্রায় ব‍্যবহার করা। 

Explore More:

পৃথিবীর শীর্ষস্থানীয় ১০ ধনী ফুটবল ক্লাব এর ইতিবৃত্ত

Recent Posts